প্রযুক্তি বিশ্বের ক্ষমতাধর ১০ নারী

অথর- টপিক- টেকনিউজ/হাইলাইটস

আমাদের দেশে একসময় ভাবা হতো নারীরা শুধু ঘরের ভেতরের কাজে পারদর্শী। কিন্তু সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও বিভিন্ন ক্ষেত্রে রাখছেন তাদের দক্ষতা ও যোগ্যতার প্রমাণ।

বর্তমানে দেশ-বিদেশের প্রায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে উচ্চপর্যায়ে কর্মরত রয়েছেন নারীরা। অনেকের জানতে ইচ্ছে করে, বর্তমান বিশ্বের প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পর্যায়ে কেনো নারী রয়েছেন কিনা? বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ বিশ্বের নামিদামি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পদে কাজ করছেন নারীরা। প্রযুক্তি বিশ্বের শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছেন, এমন ১০ নারীর গল্প এবার জেনে নেওয়া যাক।


অনেকের জানতে ইচ্ছে করে, বর্তমান বিশ্বের প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পর্যায়ে কেনো নারী রয়েছেন কিনা? বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ বিশ্বের নামিদামি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পদে কাজ করছেন নারীরা।


১. শেরিল  স্যান্ডবার্গ

হাল আমলের জনপ্রিয় সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমগুলোর একটি ফেসবুক। এই ফেসবুকের সিওও একজন নারী। তিনি শেরিল স্যান্ডবার্গ। প্রযুক্তিতে জগতে সবচেয়ে প্রভাবশালী নারী হিসেবে প্রথমেই আসবে তার নাম। ২০১২ সাল থেকে তিনি জায়ান্ট এই কোম্পানির সিওও হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। শুধু ফেসবুক নয়, এর আগে তিনি কাজ করেছেন গুগলে। তার লেখা বইয়ের নাম  ‘লিন ইন: ওম্যান অ্যান্ড দ্যা উইল টু লিড’।

২. সুসান ওয়াজিক্কি

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউবের পেছনেও রয়েছেন একজন নারী! তিনি ইউটিউবের সিইও সুসান ওয়াজিক্কি। সুসান ১৯৯০ সালে মার্কেটিং ম্যানেজার হিসেবে গুগলে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি গুগলের অ্যাডভার্টাইজিং অ্যান্ড কমার্সের সিনিওর ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে পদোন্নতি পান। গুগল ও ইউটিউবের সংমিশ্রণেও তার ভূমিকা রয়েছে। সর্বশেষ তিনি ২০১৪ সালে ইউটিউবের সিইও হিসেবে দায়িত্ব নেন।

৩. মেগ হুইটম্যান

হিউলেট প্যাকার্ডের (এইচপি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বা সিইও হিসেবে কাজ করছেন মেগ হুইটম্যান। তিনি ১৯৮০ সালে ওয়াল্ট ডিজনি কোম্পানির স্ট্রাটেজিক প্ল্যানিং বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এরপর আরও বেশ কয়েকটি কোম্পানিতে কাজ করেছেন। ২০১১ সালে তিনি এইচপির সিইও হিসেবে নিযুক্ত হন।  এছাড়া তিনি ই-বে ফাউন্ডেশনসহ আরও বেশ কয়েকটি কোম্পানির বোর্ড ওব ডিরেক্টর ছিলেন।

৪. গিননি রোমেট্টি

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস মেশিন করপোরেশন বা আইবিএম হলো যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি। ১৯১১ সালে আইবিএম প্রতিষ্ঠিত হয়। এই প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারওম্যান এবং সিইও গিননি রোমেট্টি একজন নারী। ফরবেস ম্যাগাজিনের তালিকা অনুযায়ী, ২০১৪ সালের ক্ষমতাধর ১০০ জন নারীদের মধ্যেও ছিলেন রোমেট্টি।

৫. অ্যাঞ্জেলা আহরেন্ডটস

২০০৬ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত  জনপ্রিয় ব্রান্ড বুরবেরির সিইও হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন অ্যাঞ্জেলা আহরেন্ডটস। পরবর্তীতে বিশ্বের জনপ্রিয় মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের রিটেইল এবং অনলাইন স্টোরের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি।  এমনকি, তিনি অ্যাপলের সবচেয়ে বেশি বেতন পাওয়া একজন কর্মকর্তা।

৬.  সাফরা ক্যাটজ

ওরাকল করপোরেশন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি বহুজাতিক কম্পিউটার প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। কোম্পানিটি কম্পিউটার হার্ডওয়্যার সিস্টেম এবং এন্টারপ্রাইজ সফটওয়্যার পণ্যতে পারদর্শী। এই ওরাকলের কোম্পানি ডিরেক্টর হিসেবে ১৯৯৯ সালের এপ্রিলে যোগ দেন ক্যাটজ। তিনি ২০০৪ সালে কোম্পানিটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন  এবং ২০১৪ সালে কো-সিইও হিসেবে দায়িত্ব পান।

৭. আরসুলা বার্নস

বিশ্বে অতি পরিচিত কোম্পানি জেরক্স। ১৯৮০ সাল থেকে  জেরক্স-এ কাজ শুরু করেন আরসুলা বার্নস। ২০০৯ সালে তিনি কোম্পানিটির সিইও হিসেবে দায়িত্ব পান। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসনের সময়কালে তিনি দেশটির এক্সপোর্ট কাউন্সিলের ভাইস চেয়ার অব প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে ছিলেন।

৮. দেবজানি ঘোষ

ইন্টেল করপোরেশন আমেরিকান বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। আয়ের দিক দিয়ে এটি বিশ্বের সর্ববৃহৎ সেমিকন্ডাক্টর চিপ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের উচ্চপর্যায়ে কর্মরত রয়েছেন দেবজানি ঘোষ। ইন্টেলের সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট তিনি। তিনি কোম্পানিটির দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ম্যানিজিং ডিরেক্টরের দায়িত্বেও রয়েছেন। এছাড়া প্রথম ৫০ জন ক্ষমতাধর ভারতীয় নারীদের একজন তিনি।

৯. ভানিথা কুমার

কোয়ালকম ইনকরপোরেটেড মার্কিন সেমিকন্ডাক্টর কোম্পান,  যেটি ডিজিটাল তারহীন টেলিকমিউনিকেশন পণ্য ও সেবার নকশা, নির্মাণ ও বিপণন করে। এই প্রতিষ্ঠানের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের প্রেসিডেন্ট  ভানিথা কুমার।

১০. রুথ পোরাট

অ্যালফাবেটের চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার (সিএফও) রুথ পোরাট। ২০১১ সালের ফর্বেস ম্যাগাজিন অনুযায়ী বিশ্বের ১০০ ক্ষমতাধর নারীদের মধ্যে তিনি একজন।

সৌজন্যে : প্রিয়.কম

দ্য সুলতান- এটি দ্য সুলতান.কমের একটি অফিসিয়াল আইডি। যাদের নামে কোনো আইডি দ্য সুলতানে নেই, তাদের নাম লেখার মাঝে ব্যবহার করে আমরা সাধারণত এই আইডির মাধ্যমে তাদের লেখাগুলো দ্য সুলতান.কমে প্রকাশ করে থাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*

লেটেস্ট ফরম

গো টু টপ