লম্বা দাড়িওয়ালা সর্বকনিষ্ঠ নারী মডেল

অথর- টপিক- ভিডিওগ্রাফি/হাইলাইটস

তিনিই প্রথম নারী মডেল যিনি দাড়ি নিয়ে প্রথম রানওয়েতে হেঁটেছেন। বিগত ২০১৬ সালের মার্চে লন্ডন ফ্যাশন উইকের রানওয়েতে হেঁটেছিলেন তিনি।


বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ নারী হিসেবে ছয় ইঞ্চির দীর্ঘতম দাড়ি রাখার কারণে সুহাস্য রমণী হারনাম কাউর গিনেস বুক ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম লিখিয়েছেন। ভারতীয় বংশোদ্ভুত ব্রিটেনে বার্কশায়ারের বাসিন্দা নারী হারনাম কর ।শরীর নিয়ে ইতিবাচক প্রচারক ও মডেল হারনাম কাউর হরমোনজনিত সমস্যা পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোমে আক্রান্ত। এ কারণেই তাঁর শরীরের লোম, দাড়ি ও চুলের বৃদ্ধি বেশি। অনেক কম বয়সেই তার এই সমস্যা শুরু হয়। কয়েক বছর এ সমস্যা তিনি লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করেন। কিন্তু মাসে তিনবার এগুলো তুলে ফেলা তার জন্য কষ্টকর ছিল। তাই একটা সময় তিনি এই দাড়িতেই অভ্যস্ত হওয়ার চেষ্টা করেন। তিনি শিখ ধর্মে দীক্ষা নেন। এ ধর্মে চুল দাড়ি কাটা নিষিদ্ধ। এরপর তিনি আর কখনো দাড়ি কাটেননি। ইংরেজি মূল আর্টিকেলটি পড়তে প্রবেশ করুন এই লিঙ্কে…

এক সময় দাড়িতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েন তিনি। এভাবেই নিজেকে খুশি রাখতে চান। কিন্তু যে দাড়ির জন্য এক সময় সবার কাছে তাঁকে হেয় হতে হতো সেটাই  তার জীবনে আশীর্বাদ হিসেবে দেখা দেবে, এটি নিশ্চয় তিনি নিজেও কোনোদিন ভাবতে পারেননি। কিন্তু এমনটিই ঘটেছে ২৪ বছর বয়সী  হারনাম করের জীবনে।


অন্যদিকে হারনামের জন্য ২০১৬ সালটি গুরুত্বপূর্ণ হওয়ার জন্য আরও একটি কারণ আছে। তিনিই প্রথম নারী মডেল যিনি দাড়ি নিয়ে প্রথম রানওয়েতে হেঁটেছেন। বিগত ২০১৬ সালের মার্চে লন্ডন ফ্যাশন উইকের রানওয়েতে হেঁটেছিলেন তিনি।
দাড়ি গজানোর জন্য হারনামের ছিল একটি হরমোনের ভূমিকা। এই হরমোনের নাম পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম যা মুখে দাড়ি তৈরি করে। এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এই রেকর্ডটি তৈরি করে আমি অনেক গর্বিত। আমার ভিতরের আত্মা এখন অনেক শান্তি পাচ্ছে। আমি এই বইটি পড়ে বড় হয়েছি, এমনকি আমি নিজেই নিজের রেকর্ড ভাঙ্গতে চেষ্টা করতাম এই বইতে চলে আসার জন্য। আমাকে মূল্যায়ন এবং বিয়ারডেড লেডি হিসেবে উদযাপনের জন্য আমি আনন্দিত। এবং অসাধারণ এই রেকর্ডের অধিকারী হওয়ার জন্য আমি গর্বিত’।

তথ্যসূত্র : গিনেসওয়ার্ল্ডরেকর্ড.কম

আমি তারিক আজিজ। ঘুরে-বেড়ানো আমার প্রথম শখ ও আনন্দ। সাংবাদিকতা, লেখালেখি আর উদ্ভাবনমূলক বিষয়কে একীভূত করে নিয়েছি জীবনের সঙ্গে। তাই হেড অফ ক্রিয়েটিভ পদে দ্য সুলতানের সঙ্গে যাত্রা। ছোট্ট একটি মানুষ স্বপ্নবাজ হয়ে ভাবনা-কাজের জগতেই থাকতে ভালবাসি। নির্জন-নির্মল প্রকৃতি আমায় অনেক কিছু শিখিয়ে বেড়ায়। তাই নিরন্তর সৃষ্টির গল্প খুঁজে ফিরি...!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*

লেটেস্ট ফরম

গো টু টপ