পবিত্র কোরআনের সহজপাঠ সহজ কুরআন

অথর- টপিক- বুকস

সহজ কুরআন- বইটিতে সেই ১৭ টি সূরার অনুবাদ ও ব্যাখ্যা সঠিক ও সহজবোধ্য করে লেখা হয়েছে যে সমস্ত সূরাগুলো বাল্যকালে শিখা হয়ে থাকে। পাশাপাশি প্রতিটি সূরার বিশুদ্ধ উচ্চারণও উল্লেখ করা হয়েছে। যা একাধারে যে কোন ব্যাক্তিকে উক্ত সূরাগুলো পড়তে এবং এর অর্থ ও ব্যাখ্যা বুঝার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে।


বইটি প্রকার করেছে আদর্শ। ঠিকানা ১৭৬ ফকিরাপুল, ঢাকা। ফোন : ০১৭১২২৯১৬৪৪, ০১১৯১২৩২৭৭৪। রকমারি.কম থেকে বইটি কিনতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে…


বইটিতে কোন ঘটনা বর্ণনার ক্ষেত্রে কুরআন হাদিসের আলোকে অধিকতর সঠিকতার প্রতি সর্বাত্মক চেষ্টা করা হয়েছে। সেই সাথে সাথে সাবলিল ভাষা সাহিত্যের প্রতিও সর্বাধিক দৃষ্টি রাখা হয়েছে। বইটিতে যুগপোযুগী বিষয় বস্তু দ্বারা কুরআনের সঠিক ব্যাখ্যা উপস্থাপন করা হয়েছে। সময়ের দাবী অনুযায়ী গ্রন্থটি এক অনবদ্য সৃষ্টি। যা বাংলা ভাষাবাসীদের জন্য যুগের শ্রেষ্ঠ উপহার বলে বিবেচ্য হবে।

বইটি লিখেছেন প্রগতিশীল ইসলামী চিন্তার অগ্রজ আসিফ সিবগাত ভূঞা। যিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ শেষ করে ইসলামকে গভীরভাবে জানার আগ্রহে দীর্ঘ বার বৎসর সময় ব্যয় করেন এবং ২০০৯ সালে কাতার গমন করেন এবং ইসলামের বিভিন্ন শাস্ত্রের জ্ঞানার্জন করেন। বর্তমানে তিনি কর্মজীবনের পাশাপাশি মিশকাহ ইউনিভার্সিটি নামক একটি অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি ব্যাচেলর প্রোগ্রামে ইসলামিক স্টাডিজ নিয়ে অধ্যায়নরত আছেন। এছাড়া তাকওয়া লেন নামক একটি অনলাইন ইসলামিক সাইট তার তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হয়।

বইটি সম্পর্কে গ্রন্থকার বলেন, “কুরআনকে নিয়ে যেদিন আমরা চিন্তা করা শুরু করব, সেদিন কুরআনের প্রকৃত হক আদায় করা শুরু হবে। এ বইটি হয়ে উঠতে পারে আপনার জীবনে একটি স্টেপিং স্টোন। এর ওপর ভর করে আপনি কুরআনের অলৌকিক দুনিয়ার সাথে আস্তে আস্তে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারেন। যদি বইটি পড়ার পর আপনি অনুভব করেন যে, নাহ্‌ কুরআনটা ভালো করে আদ্যোপান্ত না পড়লে আর চলছে না, তাহলে বইটির উদ্দেশ্য সফল হবে”।

পাঠক পতিক্রিয়া : লেখক যথার্থই বলেছেন, যে মানুষগুলো স্কুলে বইয়ের মাঝে লুকিয়ে চাচা চৌধুরী পড়তেন, একটু বড়ো হয়ে যাদের মাসুদ রানা না পড়ে পেটের ভাত হজম হতো না এবং পরিণত বয়সে হুমায়ুন আহমাদের উপান্যাস যারা গোগ্রাসে গিলতেন সহজ কুরআন পড়ে তাদেরও ভাল লাগবে। আমি বইটির শুরু থেকে শেষ বেশ আগ্রহ আর আনন্দ নিয়েই পড়েছি। নূন্যতমও বিরক্তিবোধও আসেনি।

আমি আশিকুল ইসলাম খান। তাকমিল ( স্নাতক) সম্পন্ন করেছি ২০১৫ সালে টঙ্গী দারুল উলূম মাদরাসা থেকে। আরবী সাহিত্য নিয়ে পড়েছি জামিয়া দারুল আরকাম, বি-বাড়িয়ায়। বর্তমানে ইফতা পড়ছি জামিয়া আরাবিয়া খাদিমুল ইসলাম, মিরপুর-১৩। লেখালেখি হাতেখরি সেই বাল্যকালেই শ্রদ্ধেয় মামা মুফতী জহীরুল ইসলাম সাহেবের হাতে । তারপর বেশ কিছু পত্রিকায় কাজ করারও সুযোগ হয়েছে। দীর্ঘ দুই বৎসর পাক্ষিক মুক্ত আওয়াযের টঙ্গী থানা রিপোর্টার হিসেবে কাজ করছি। দ্য সুলতানের সাথে জড়ি আছি কন্ট্রিবিউটিং রাইটার হিসেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*

লেটেস্ট ফরম

গো টু টপ