Daily archive

January 05, 2017

ভারতে গুগলের ‘ডিজিটাল আনলক’

অথোর- টপিক- ইন্টারনেট/টেক-সায়েন্স

টেক ডেস্ক : বিশ্বসেরা তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল ‘ডিজিটাল আনলক’ শীর্ষক কর্মসূচি ভারতে চালু করেছে । গতকাল বুধবার ভারতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাই এ ঘোষণা দেন। অনুষ্ঠানে সুন্দর পিচাই বলেন, গুগলের এ দীর্ঘমেয়াদি কর্মসূচির মাধ্যমে ভারতের ছোট ছোট উদ্যোগগুলোকে ইন্টারনেট ভিত্তিক ব্যবসা সম্প্রসারণে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি বিনামূল্যে ডোমেইন এবং হোস্টিং সেবা দেওয়া হবে। এ কর্মসূচির আওতায় পাঁচ কোটি ১০ লাখ ছোট ও মাঝারি মানের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল বিপণন বিষয়ক প্রশিক্ষণ গ্রহণের সুযোগ পাবে। এ কর্মসূচিতে জুতার দোকানি থেকে শুরু করে ফাস্ট ফুড বিক্রেতাও প্রশিক্ষণ গ্রহণের সুযোগ পাবে। কিপ রিডিং…

আমার গানগুলো কি সাহিত্য‌ : বব ডিলান

অথোর- টপিক- কালচার/ক্যারিয়ার/লাইফস্টাইল/লিটারেচার

কালচার ডেস্ক : গেল বছর সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন মার্কিন গায়ক বব ডিলান। তবে তিনি পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে যাননি। তাই তাঁর হয়ে পুরস্কারটি গ্রহণ করলেন সুইডেনের মার্কিন রাষ্ট্রদূত। পড়ে শোনানো হলো ডিলানের তীর্যক সম্মতি ভাষণ। ডিলানের সেই লিখিত ভাষণটি তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য : ‘‌শুভ সন্ধ্যা উপস্থিত সবাইকে। সুইডিশ আকাদেমি এবং সমাগত অতিথিদের শুভেচ্ছা। আমি দুঃখিত উপস্থিত থাকতে না পারার জন্য, কিন্তু শারীরিকভাবে না হলেও আমার মন, আত্মা আপনাদের সঙ্গেই রয়েছে!‌


 


আমি সম্মানিত বোধ করছি এই মূল্যবান পুরস্কারটি পেয়ে। কোনোদিন কল্পনাও করতে পারিনি ‘‌সাহিত্য’-‌এ‌ নোবেল পেয়ে যাব!‌ শৈশব থেকেই জানি কোনো কোনো মহারথীরা এই পুরস্কার পেয়ে


 


আসছেন। আমি বাকরুদ্ধ!‌ আমি জানি না তারা কখনও নোবেল লাভের কথা ভেবেছিলেন কি না, কিন্তু আমার স্থির ধারণা পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে কেউ যখন কিছু সৃষ্টি করেন, সে গান কবিতা নাটক যাই হোক না কেন, মনে মনে নিশ্চয়ই নোবেল পাওয়ার গোপন স্বপ্ন বহন করেন, যা নিজেরাও জানেন না!‌ কিপলিং, বার্নাড ‘‌শ, টমাস মান, পার্ল বাক, অ্যালবেয়ার কামু, হেমিংওয়ে, এই সমস্ত নোবেল প্রাপকদের লেখনি পড়ে বড় হয়েছি। তাদের সাহিত্য স্কুল কলেজে পাঠ্য। এবার এই দিকপালদের তালিকায় আমার নাম যুক্ত হলো?‌ কিপ রিডিং…

বাংলা একাডেমিতে চলছে পৌষ মেলা

অথোর- টপিক- কালচার/ফেস্টিভ্যাল

কালচার ডেস্ক : শীতকাল অতিবাহিত হচ্ছে।  বাংলার এই ঋতুকে উদযাপনের জন্য শুক্রবার থেকে বাংলা একাডেমিতে শুরু হতে যাচ্ছে তিন দিনের পৌষ মেলা। গত মঙ্গলবার সকালে বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রাহমান মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে মেলার নানা প্রস্তুতির কথা জানান, পৌষ মেলা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ রায়। আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, পৌষ মেলা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, সহসভাপতি নাট্যব্যক্তিত্ব ঝুনা চৌধুরী।

কিপ রিডিং…

অনলাইন সুবিধায় জনতা ব্যাংকের সাত শতাধিক শাখা

অথোর- টপিক- /ইকোনমি/ব্যাংক-ইনস্যুরেন্স

ইকোনমি ডেস্ক : রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন জনতা ব্যাংকের মোট শাখা ৯১১টি। এর মধ্যে ৭২১ শাখায় ২০১৬ সাল শেষে অনলাইন সুবিধা চালু করা হয়েছে। ২০১৫ সাল নাগাদ ব্যাংকটির অনলাইন শাখার সংখ্যা ছিল ৫০৩টি। এ বছরের জুনের মধ্যে ব্যাংকটির সবগুলো শাখায় অনলাইন সুবিধা চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। ব্যাংকটির সিইও ও এমডি মো. আবদুস সালাম এ তথ্য জানিয়েছেন।এদিকে ২০১৬ সালে এক হাজার ছয় কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা অর্জন করেছে ব্যাংকটি। মুনাফার লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৯০০ কোটি টাকা। কিপ রিডিং…

রপ্তানি আয় বেড়েছে ৪.৪৪ শতাংশ

অথোর- টপিক- ইকোনমি/কর্পোরেট

ইকোনমি ডেস্ক : দেশের রপ্তানি আয় বেড়েছে আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ। এ সময়ে রপ্তানি আয় হয়েছে এক হাজার ৬৭৯ কোটি ৮১ লাখ মার্কিন ডলার। তবে রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে আছে। চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) থেকে এ পরিমাণ রপ্তানি আয় বেড়েছে। অন্যদিকে, একক মাস হিসেবে সর্বশেষ ডিসেম্বর মাসে রপ্তানি আয় আগের বছরের একই মাসের তুলনায় ৩ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ কমেছে।


চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে লক্ষ্যমাত্রা ছিল এক হাজার ৭৩৬ কোটি ৭০ লাখ ডলার। এর বিপরীতে আয় হয়েছে এক হাজার ৬৭৯ কোটি ৮১ লাখ ডলার।


রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে লক্ষ্যমাত্রা ছিল এক হাজার ৭৩৬ কোটি ৭০ লাখ ডলার। এর বিপরীতে আয় হয়েছে এক হাজার ৬৭৯ কোটি ৮১ লাখ ডলার। আর গতবছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল এক হাজার ৬০৮ কোটি ৩৯ লাখ ডলার। সেইসঙ্গে ডিসেম্বরে আয় হয়েছে ৩১০ কোটি ৭১ লাখ ডলার। লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৩৫ কোটি ডলার। গত বছর ডিসেম্বরে আয়ের পরিমাণ ছিল ৩২০ কোটি ৪০ লাখ ডলার।

প্রধান রপ্তানি পণ্য পোশাক খাতের আয় ধারাবাহিকভাবে ভালো হওয়ায় রপ্তানিতে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রয়েছে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন। এ প্রসঙ্গে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা বাংলাদেশ সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) নির্বাহী পরিচালক ড. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের রপ্তানি খাত মূলত পোশাক নির্ভর।


আর গতবছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল এক হাজার ৬০৮ কোটি ৩৯ লাখ ডলার। সেইসঙ্গে ডিসেম্বরে আয় হয়েছে ৩১০ কোটি ৭১ লাখ ডলার। লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৩৫ কোটি ডলার।


রপ্তানিতে পোশাক খাতের অবদান দিন দিন বাড়ছেই। এ কারণেই রপ্তানি আয়ে উল্লেখ করার মতো প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব হচ্ছে। তিনি রপ্তানি আয় আরও বাড়াতে প্রচলিত বাজার ছাড়াও নতুন বাজারের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পোশাকের পাশাপাশি অন্য পণ্যে মনোযোগ দেয়ার পরামর্শ দেন।

কিপ রিডিং…

বাংলাদেশের মানুষ অতিথিপরায়ণ

অথোর- টপিক- ইন্টারভিউ/এডিটরিয়াল/হাইলাইটস

ঢাকায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের নবযাত্রা শুরু করবে। নতুন নতুন পরিকল্পনা, সেবার ধারা নিয়ে আগাম কথা বলেছেন ইন্টারকন্টিনেন্টাল ঢাকার মহাব্যবস্থাপক জেমস পি ম্যাক ডোনাল্ড। বাংলাদেশে পর্যটনশিল্পের এখনকার চিত্র আর সম্ভাবনার দিকটিও তুলে ধরেছেন তিনি। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন আসাদুজ্জামান।


হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল আন্তর্জাতিকভাবে কবে থেকে যাত্রা শুরু করে?

ধন্যবাদ। ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলস গ্রুপের আওতাধীন ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলস এবং রিসোর্ট আন্তর্জাতিকভাবে তাদের যাত্রা শুরু করে ১৯৪৬ সালের ৪ এপ্রিল। বিশ্বব্যাপী এই হোটেলটি ৭০ বছর ধরে সেবা দিয়ে আসছে। শুধু ইন্টারকন ব্র্যান্ডে পৃথিবীব্যাপী হোটেলের সংখ্যা ২০০। অন্যদিকে ইন্টারকন্টিনেন্টাল গ্রুপ নামে হোটেলের সংখ্যা সাড়ে চার হাজারের বেশি।

তিন দশক পর আপনারা আবার ঢাকায় ফিরলেন। এ নিয়ে কী বলবেন?

বাংলাদেশে এই হোটেলটি যাত্রা শুরু করেছিল ১৯৬৬ সালে। ঢাকার মিন্টো রোডে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশের প্রথম পাঁচতারা হোটেল হিসেবে। প্রথম পর্যায়ে ৩০০টি কামরা নিয়ে হোটেলটি শুরু হয়েছিল। ব্যবসায়িক দিক থেকে বাংলাদেশের গুরুত্ব রয়েছে। দিন দিন অর্থনৈতিকভাবে উন্নয়ন হচ্ছে বাংলাদেশের। বিদেশি বিনিয়োগকারী, ব্যবসায়ী, পর্যটকরা বাংলাদেশে আসছেন। থাকছেন। এদের জন্য বিলাসবহুল সেবা দিতে প্রস্তুত হচ্ছে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল। কিপ রিডিং…

পাবলিক টয়লেট ও নাগরিক রুচি

অথোর- টপিক- অপিনিয়ন/এডিটরিয়াল

মো. আনছার আলী খান : পদস্থ এক কর্মকর্তা বিমানবন্দর থেকে বাসায় ফেরার উদ্দেশে গাড়িতে উঠলেন। ড্রাইভারের কেনা সেদিনের পত্রিকার গরম খবরগুলোর শিরোনাম দেখতে লাগলেন কাগজের পাতা উল্টিয়ে। হোটেল রেডিসন পেরিয়ে রেলক্রসিংয়ে আসতেই গেট বন্ধ। কয়েক মিনিট পর ট্রেন চলে গেল; কিন্তু গেট উঠছে না। খবর পাওয়া গেল, আরও একটি ট্রেন আসছে।



অতএব অপেক্ষা ছাড়া কিছুই করার নেই। হঠাৎ পেটের মধ্যে অস্বস্তি শুরু হলো। বাসা, অফিস বা অন্য কোনো সুবিধাজনক স্থান হলে তখনই ওয়াশরুমে যেতে হতো। নানা কারণে মানুষকে ওয়াশরুমে যেতে হয়। তবে পেটের অস্বস্তিজনিত কারণে যত বিলম্ব ততই দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা। কিন্তু রেলগেট অগ্রাহ্য করার তো কোনো উপায় নেই। কপাল ভালোই বলতে হবে। কারণ অন্য ট্রেনটি যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উঠে গেল গেট। প্রায় সব গাড়ি একসঙ্গে অপ্রয়োজনীয় হর্ন বাজিয়ে একে অপরকে রাস্তা ছাড়ার সাবধানী সংকেত দিতে দিতে দ্রুত বেগে ছুটতে শুরু করল। কিছুক্ষণের মধ্যেই পৌঁছে যান কাকলি সিগন্যালে। কাকলি মোড় থেকে বনানী কবরস্থান পর্যন্ত লম্বা লাইন। কাজেই এক সিগন্যালে সম্ভব হলো না মোড় অতিক্রম করা। পুনরায় পেটের ব্যথাটা জানান দিল। আশপাশে কোনো বন্ধু বা আত্মীয়-স্বজনের কথা মনে করতে পারলেন না। গাড়ি থেকে নেমে রাস্তার পাশে কোথাও যাওয়া যায় কি-না সে চিন্তা মাথায় এলেও উপায় বের করা গেল না শিশুকালে রাত দুপুরে এমন পরিস্থিতিতে নানি-দাদির শেখানো মন্ত্র কাজে লাগে। কিন্তু বড় হয়ে জানা গেছে- মন্ত্র কিছু নয়, মনকে ডাইভার্ট করা। ফলে মন্ত্র আর কাজ করে না।



গাড়িচালক স্যারের কিছু একটা অসুবিধার কথা টের পেয়েছিল বোধ করি। স্টিয়ারিং হাতে অসহায়ের মতো অপেক্ষা করতে করতে এক সময় উল্টো পথে শোঁ করে বিজয় সরণি মোড় অতিক্রম করে সামনে ছুটতে লাগল। ফার্মগেট পেরিয়ে কারওয়ান বাজারে নিত্যদিনের যানজটে পড়ল আবার। স্যার জানালেন, হোটেল সোনারগাঁওয়ে এক জরুরি কাজ। জরুরিটা বোধ করি আঁচ করতে পারল গাড়িচালক। মেইন রোড থেকে রিকশা লেইন দিয়ে সার্ক ফোয়ারা অতিক্রম করে হঠাৎ উল্টোপথে হোটেলের বহির্গেট দিয়ে হোটেল চত্বরে প্রবেশ করল চালক।

কিপ রিডিং…

ডিএনসিসি মার্কেটে আগুন : ক্ষতি ৬০০ কোটি

অথোর- টপিক- টপ নিউজ/ফলোআপ

টপনিউজ ডেস্ক :  রাজধানীর গুলশানে ডিএনসিসি মার্কেটে ভয়াবহ আগুনে সহায়-সম্বল হারিয়ে এখন পথে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। প্রাথমিক হিসাব অনুযায়ী তাদের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ৬০০ কোটি টাকা।

তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, ক্ষতির পরিমাণ আরো বাড়তে পারে। কারণ এখনো ধসে পড়া মার্কেটের ভেতর থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে।কোনো কিছুই রক্ষা পায়নি। আকস্মিক এই বিশাল ক্ষতি কীভাবে সামলে উঠবেন তা নিয়ে ভাবতেও পারছেন না ব্যবসায়ীরা। দুই দিন আগেও যারা ছিলেন বিত্তশালী তারা আজ নিঃস্ব।ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের মতে, গান পাউডার ছিটিয়ে হয়তো আগুন লাগানো হয়েছে। নইলে মাত্র ৩০ মিনিটে কী করে একটি এত বড় ভবন ধসে পড়ল! তাদের অভিযোগের তির মেট্রো গ্রুপের দিকে। ব্যবসায়ীরা জানান, অনেক আগে থেকেই কর্তৃপক্ষ তাদেরকে উচ্ছেদ করার জন্য চেষ্টা করছে। এ নিয়ে মামলাও চলছে। এই অগ্নিকাণ্ড একটি ষড়যন্ত্র বলে তারা মনে করেন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরাও প্রথম থেকে গাফিলতি করেছেন বলে তাদের অভিযোগ। ব্যবসায়ীরা আশঙ্কা করছেন, পুড়িয়ে দেওয়া মার্কেটের দখল যে কোনো মুহূর্তে প্রভাবশালীরা নিয়ে নিতে পারে। এ কারণে তারা মার্কেটের দখল ছাড়তে নারাজ। অনেকে বলেছেন, প্রয়োজনে তাঁবু গেড়ে অবস্থান নেবেন।

এদিকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বলছে, তারা তদন্ত শুরু করেছেন। নাশকতামূলক তৎপরতা হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত অনেক কিছু বলা সম্ভব নয়। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা তদন্তে গঠিত কমিটির প্রধান ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক লে. কর্নেল মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, ‘সব দিক মাথায় রেখেই তদন্ত করা হচ্ছে। এটা নিছক অগ্নিকাণ্ড, নাকি নাশকতা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আমরা দোকানমালিকদের অভিযোগ উড়িয়ে দিচ্ছি না। পুড়ে যাওয়া দোকানগুলো থেকে আলামত সংগ্রহ করছি। সেগুলো পরীক্ষা করে দেখা হবে, কী কারণে অগ্নিকাণ্ড হলো।’

বুধবারও পোড়া মার্কেটের বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে ধোঁয়া বের হতে। বাতাসে ছিল পোড়া গন্ধ। কেমিক্যাল পোড়া গন্ধও পাওয়া গেছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেখানে পানি ছিটিয়ে যাচ্ছিলেন। পোড়া মার্কেটের সামনেই রাস্তার ওপর রাতভর ঠায় বসে ছিলেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা। কেউ কেউ মার্কেটের সামনে খোলা জায়গায় বিছানা-বালিশ নিয়ে এসেছেন। সেখানেই তারা অবস্থান করছেন। অনেকে ধ্বংসস্তূপ হাতড়ে বেড়িয়েছেন। আশা, যদি বেঁচে যাওয়া কিছু পাওয়া যায়!

গতকাল বুধবার সকাল থেকে ব্যবসায়ীরা মার্কেটের সামনে জড়ো হতে থাকেন। অনেকেই বেঁচে যাওয়া মালামাল সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। অনেকের আহাজারিতে সেখানকার বাতাস ভারী হয়ে ওঠে।  দুপুরে মার্কেটে মাইকিং করে বলা হয়, ব্যবসায়ীরা যেন মার্কেট না ছাড়েন। তাদের আশঙ্কা, মার্কেট ছেড়ে দিলে যে কোনো সময় বেদখল হয়ে যেতে পারে। তাদের চোখেমুখে সেই আতঙ্ক স্পষ্ট।

কিপ রিডিং…

বিচারপতি অপসারণ : আপিল শুনানি ৮ ফেব্রুয়ারি

অথোর- টপিক- টপ নিউজ/ল-জাস্টিস


টপনিউজ ডেস্ক : উচ্চ আদালতের বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যাস্ত করে সংবিধানের ১৬তম সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে


হাইকোর্টের দেয়া রায় চ্যালেঞ্জ করে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল শুনানির জন্য আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দিন ঠিক করেছেন আপিল বিভাগ। কিপ রিডিং…

বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিটে সফল মানুষের মিলনমেলা

অথোর- টপিক- ইমিগ্র্যান্ট/টপ নিউজ

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে এত এত মেধাবী ও সফল মানুষ আছেন জানতামই না আগে। গত ১৯-২০ নভেম্বর কুয়ালালামপুরে হয়ে যাওয়া প্রথম বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিটে উপস্থিত থেকে দেখলাম আমাদের দেশের কত সফল মানুষ প্রবাসে থাকেন। তাঁরা কেউ ১০ বছর, কেউ ২০ বছর, কেউ কেউ ৩০-৩৫ বছর ধরে দেশের বাইরে আছেন।

 যাঁরা ইউরোপ-আমেরিকায় থাকেন তাঁরা সবাই ওই দেশের নাগরিক। তারপরও তাঁদের মন কাঁদে মাতৃভূমি বাংলাদেশের জন্য। বাংলাদেশ, দেশের উন্নয়ন ও ষোলো কোটি মানুষের কথা বলার জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অনেক পথ পাড়ি দিয়ে পকেটের টাকা খরচ করে তাঁরা এসেছেন কুয়ালালামপুরে। তাঁরা সবাই কী সুন্দর করে অপার সম্ভাবনাময় বাংলাদেশের কথা ও বিউটিফুল বাংলাদেশের কথা বললেন। বাংলাদেশ নিম্নমধ্য আয়ের দেশ থেকে দ্রুত মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনার কথা বললেন। দেশের বিশাল তরুণ জনগোষ্ঠীকে জেনারেল থেকে সেমি স্কিল, সেমি স্কিল থেকে স্কিল বানানোর কথা বললেন। বাংলাদেশের আইটি খাত নিয়ে ও বিনিয়োগের কথা বললেন।

প্রবাসীদের অধিকারের কথা তো আছেই। ঢাকা বিমানবন্দরে নানাভাবে হয়রানির শিকার হওয়ার স্মৃতি তুলে ধরলেন অনেকে। মালয়েশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের মতো শ্রমিক-নির্ভর দেশগুলোতে হাইকমিশন বা দূতাবাসের সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে হয়রানির কথাও উঠে এসেছে প্রবাসীর বক্তব্যে। বিভিন্ন বিষয়ের ওপর চারটি সেমিনারও দেখলাম। সেমিনার নানা সব কথামালা শুনলাম ভিন্ন ভিন্ন দেশের ভিন্ন ভিন্ন শহর থেকে আসা অভিজ্ঞ প্রবাসীদের মুখে। বাংলাদেশ থেকেও এসেছিলেন অনেকে। তাঁদের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য ছিলেন আবেদ খান, মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, নঈম নিজাম, সাইফুল আলম, আহমেদ জোবায়ের, শ্যামল দত্ত, সাবির মোস্তফা, মাহমুদ হাফিজ ও পীর হাবিবুর রহমান প্রমুখ। কিপ রিডিং…

গো টু টপ