Daily archive

April 10, 2017

সংবাদ প্রভাকর : বাংলায় প্রকাশিত প্রথম দৈনিক

অথোর- টপিক- ফিচার/লিড স্টোরি

সংবাদ প্রভাকর বাংলা ভাষায় প্রকাশিত প্রথম সংবাদপত্র। এটি বাংলা সাময়িক পত্রের ইতিহাসে এক নতুন যুগের উন্মেষ ঘটায়। পত্রিকাটি ১৮৩১ খ্রিস্টাব্দের ১৪ জুন তারিখে সাপ্তাহিক হিসেবে প্রথম প্রকাশিত হয় এবং ১৮৩৯ সালে দৈনিক পত্রিকা হিসেবে যাত্রা শুরু হয়। এটিই বাংলা ভাষায় প্রকাশিত প্রথম দৈনিক পত্রিকা। কবি ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত পত্রিকাটির প্রতিষ্ঠাতা প্রকাশক ও সম্পাদক। এর সদরদপ্তর ছিল কলকাতা, বেঙ্গল, ব্রিটিশ ইন্ডিয়া। বর্তমানে পত্রিকাটির প্রকাশনা বন্ধ।

পত্রিকাটি প্রকাশে পাথুরিয়াঘাটার যোগেন্দ্রমোহন ঠাকুরের ভূমিকা ও সহযোগিতা ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ ও অপরিহার্য। তাঁর মৃত্যুর কারণে ১৮৩২ সালের ২৫ মে প্রকাশিত ৬৯তম সংখ্যার পর পত্রিকাটির প্রকাশনা বন্ধ হয়ে যায়। তাঁর মৃত্যুর চার বছর পর ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত পুনরায় সংবাদ প্রভাকর প্রকাশের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ১৮৩৬ সালে পুনরায় পাথুরিয়াঘাটার ঠাকুর পরিবার পত্রিকা প্রকাশে সহযোগিতার হাত সম্প্রসারণ করে। [উইকিপিডিয়া]

মাত্র ১৯ বছর বয়সে দরিদ্র ও ইংরেজি শিক্ষাহীন ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত সংবাদ প্রভাকর প্রকাশ করে বাংলা সংবাদপত্রের জগতে নতুন পথের সন্ধান দেন। ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত- বাঙালি কবি ও পত্রিকা সম্পাদক। সাধারণ পরিচিতি ছিল গুপ্ত কবি। ছদ্মনাম ‘ভ্রমণকারী বন্ধু’। ১৮১২ খ্রিষ্টাব্দে চব্বিশপরগণা জেলার কাঞ্চনপল্লী বা কাঞ্চনপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা হরিনারয়ণ দাশগুপ্ত ছিলেন আয়ুর্বেদিক কবিরাজ। মায়ের নাম শ্রীমতি দেবী।  তাঁর নয় বৎসর বয়সে মাতৃবিয়োগ হয়। এরপর তিনি কোলকাতার জোড়াসাঁকোতে তাঁর মামার ড়িতে প্রতিপালিত হন। মাত্র ১৫ বৎসর বয়সে তিনি গৌরহরি মল্লিকের কন্যা রেবা মল্লিককে বিয়ে করেন। ১৮২৯ খ্রিষ্টাব্দ থেকে তিনি নানাধরনের সামাজিক আন্দোলনের সাথে যুক্ত হন। ১৮৩১ খ্রিষ্টাব্দের ২৮শে জানুয়ারি, যোগেন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাথে তিনি ‘সংবাদ প্রভাকর’ নামক একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা প্রকাশ শুরু করেন। এই পত্রিকার সম্পাদনাযকও তিনি ছিলেন ১৮৩২ খ্রিষ্টাব্দে তিনি  সংবাদ রত্নাবলী পত্রিকার সম্পাদনার দায়িত্ব পালন করেন।  ১৮৩৬ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ই জুন থেকে তাঁর উদ্যোগে ‘সংবাদ প্রভাকর’ দৈনিক পত্রিকা হিসেবে প্রকাশিত হওয়া শুরু করে।  ১৮৪৬ খ্রিষ্টাব্দে তিনি সাপ্তাহিক পাষণ্ড পত্রিকার সঙ্গে সম্পাদনা করা শুরু করেন। উল্লেখ্য গৌরীশঙ্কর ভট্টাচার্যের সাথে ‘রসরাজ’ পত্রিকার কবিতাযুদ্ধ চালাবার জন্য এই পত্রিকা প্রকাশ করেন। ১৮৪৭ খ্রিষ্টাব্দে ‘সংবাদ সাধুরঞ্জন’ পত্রিকার দায়িত্বভার পালন করেন।  ১৮৫৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৩শে জানুয়ারি তিনি মৃত্যুবরণ করেন। [সূত্র : বিদ্যাসাগর রচনাবলী। তুলি কলম। জুন, ১৯৮৭ । জৈষ্ঠ্য ১৩৯৪।] কিপ রিডিং…

নৌসেনাপতির রোমাঞ্চকর ভ্রমণকাহিনী ‘দ্য এডমিরাল’

অথোর- টপিক- বুকস

ষোড়শ শতকের অটোমান সাম্রাজ্যের একজন নৌসেনাপতির রোমাঞ্চকর ভ্রমণকাহিনী ‘দ্য এডমিরাল’। তুর্কি উসমানী খেলাফতের নৌসেনাপ্রধান সাইয়েদ আলি রাইসের লেখা এডভেঞ্চারপূর্ণ গ্রন্থটি সঙ্গত কারণেই লাভ করেছে চিরায়ত ইতিহাসের মর্যাদা। এতে বিবৃত হয়েছে পর্তুগিজ জলদস্যুদের সাথে সংঘটিত এডমিরালের রোমহর্ষক সমুদ্রযুদ্ধ, জলদস্যুদের তাড়া করতে গিয়ে কূলহারা আরব সাগরের বুকে হারিয়ে যাওয়া, তরঙ্গবিক্ষুব্ধ ভারত মহাসাগরের ভাগ্যরোহিত ভয়াল দিনগুলি, সমুদ্রঝড়ের কবলে পড়ে মৃত্যুর মুখ থেকে বেঁচে আসা, ভারতবর্ষসহ বিস্তীর্ণ মধ্য ও পশ্চিম এশিয়ার তৎকালীন রাজনৈতিক পরিস্থিতি, ধর্মীয় ও সামাজিক চিত্রাবলী, অতি নিকট থেকে দেখা মোঘল সাম্রাজ্যের ঐতিহাসিক বিবরণ ইত্যাদি।


বইয়ের নাম বই : মিরআতুল মামালিক- দ্য অ্যাডমিরাল, মূল: সাইয়িদি আলি রইস (সিদি আলি রেইজ), অনুবাদক : সালাহউদ্দীন জাহাঙ্গীর, প্রকাশনী : নবপ্রকাশ, বাংলাবাজার, ঢাকা, মুদ্রিত মূল্য: ১৫০/-। বইটি রকমারি.কম থেকে কিনতে চাইলে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে


ইরান তুরান খোরাসান কাবুল দিল্লি সিন্ধু গুজরাট বসরা মসুল তিকরিত বাগদাদ বোখারা সমরকন্দ সহ এশিয়া মাইনরের বিস্তীর্ণ এলাকা ভ্রমণ করেন তিনি। বাংলা ভ্রমণসাহিত্যে বইটি বিশেষ গুরুত্ব রাখার কারণ হলো লেখক বাংলাদের চট্টগ্রামেও ভ্রমণ করেছেন পনেরো শতকের উত্তাল সে সময়টিতে। কিপ রিডিং…

UNICERT organised training on Quality Certification

অথোর- টপিক- কর্পোরেট

A training program on Awareness Session of CMMI, ISO 9001 and ISO/IEC 27001 has been organized by the United Certification Services Limited (UNICERT), at the Conference Hall of Software Technology Park, Janata Tower, Kawran bazar, Dhaka. UNICERT is only one accredited ISO Certification Body and CMMI transition partner in Bangladesh.

The objective of this program was to provide an overview of CMMI (Capability Maturity Model Integration), ISO 27001:2013 (Information Security Management System) and ISO 9001:2015 (Quality Management System) including implementation aspects. From the session, participants gathered working knowledge on these models & frameworks. The whole day program was attended by 70 Seventy participants, who are senior members of the IT Companies, selected by the High Tech Park Authority (HTPA) of the Government of Bangladesh to provide quality certification programme of CMMI, ISO 9001 and ISO/IEC 27001 Certification.

At the end of the program certificates have been awarded to the participant’s handover by Mr. A.N.M Shafiqul Islam, Project Director of the HTPA (Hi Tech Park Authority) under the ICT Division. During the program the participants get the basic understanding of Capability Maturity Model Integration, Information Security Management System and Quality Management System. Faculty of UNICERT came from Banglaore, India. কিপ রিডিং…

গো টু টপ