Daily archive

April 12, 2017

কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতির ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

অথোর- টপিক- Uncategorized

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ স্তর দাওরায়ে হাদিসকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রির সমমান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এই স্বীকৃতির ফলে ইসলামিক স্টাডিজে এবং আরবি বিষয়ে এমএ ডিগ্রি পাবেন কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। প্রধানমন্ত্রী মঙ্গলবার রাতে গণভবনে কওমি মাদ্রাসার আলেম-ওলামাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এই স্বীকৃতি প্রদান করেন। কওমি মাদ্রাসার স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে এবং ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দের মূলনীতিকে ভিত্তি করে এই সমমান দেওয়া হলো বলেও তিনি জানান। প্রধানমন্ত্রী আলেমদের উদ্দেশে বলেন, ‘প্রথমে একটা প্রজ্ঞাপন হবে। তারপর আপনারা যেভাবে চান সবকিছু মিলিয়ে একটা আইনি ভিত্তি দেওয়া হবে।’ কিপ রিডিং…

মন ভাল করে দেয়ার মতো পাঁচটি বাংলা সিনেমা

অথোর- টপিক- এন্টারটেইনমেন্ট/হাইলাইটস

অগ্নিসাওয়ার নাথ :  সিনেমা আমরা কম বেশি সবাই দেখি। পছন্দ হয়তো ভিন্ন হতে পারে, কিন্তু দেখার কমতি খুব যে থাকে তা বোধ করি অনেকেই মানতে নারাজ হবেন। কারও পছন্দ হাসির, কারও অ্যাকশন, কারও ভূত প্রেতের, কারও ডিটেকটিভ, আর কারও বা থ্রিলার। কাহিনীর ভিন্নতায় প্রতিটি সিনেমার আবেদন ভিন্ন। ভাষার ভিন্নতাও রয়েছে অনেক। হিন্দি, বাংলা, তামিল বা ইংরেজি ভাষার তারতম্যে ভাল লাগা, মন্দ লাগার পার্থক্য তো রয়েছেই। ইরানি, কোরিয়ান, জাপানিজ আরও কত দেশের সিনেমা নিত্য যোগ হচ্ছে আমাদের পছন্দের লিস্টে। কাহিনীর ভিন্নতা আর অভিনেতা ও পরিচালকের মুন্সিয়ানা অনেক ছবিতে যোগ করে বিনোদনের ভিন্ন মাত্রা। আর তা হবেই না বা কেন? এখনও যে সিনেমা বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম হয়ে রয়েছে আমাদের মনে!

আজ তেমনি কয়েকটি বাংলা সিনেমার নিয়ে কথা বলবো যেগুলো হয়তো অনেকের চোখ এড়িয়ে গেছে। ওপার বাংলার হলেও এপার বাংলার সিনেমাপ্রেমীদের খুব একটা হতাশ করবে বলে মনে হয় না। হালকা হাস্যরস-বিনোদনের মন ভাল করা এই মুভিগুলো যেকোনো বয়সের দর্শকের পছন্দ হতে বাধ্য। এই কর্মব্যস্ততার ভিড়ে কেউ যদি মুভি বেছে নেয়ার দ্বন্দ্বে ভোগেন, তাহলে কিছুটা হয়তো সাহায্য করতে পারে আজকের এই লেখা।

রংমিলান্তি : প্রথমেই যে মুভিটির কথা বলতে যাচ্ছি সেটা হল কৌশিক গাঙ্গুলির ‘রংমিলান্তি’। কৌশিক গাঙ্গুলি বর্তমান সময়ের খুব নামকরা পরিচালকদের মধ্যে একজন। তার সুনিপুণ হাতের লেখা এবং দক্ষ পরিচালনায় ‘রংমিলান্তি’ সিনেমাটি খুব সহজেই দর্শকদের মন ভোলাতে যথেষ্ট সামর্থ্য রাখে। এই সিনেমার কাহিনী প্রেমের আবর্তে তৈরি হলেও আর চার পাঁচটি সাধারণ প্রেমের কাহিনীর মতো নয়। সিনেমাটির বিষয়বস্তু হজম করতেও অনেকের একটু বিষম খেতে হবে তা বলতে বাঁধা নেই। কিন্তু কাহিনীর উথান পতন, লেখকের লেখনি এবং পরিচালকের দক্ষ পরিচালনায় সিনেমাটি হয়ে উঠেছে প্রাণবন্ত। কমলিকা নামের একটি মেয়ের জীবনসঙ্গী বেছে নেয়ার দোলাচালে কাহিনীর গোড়াপত্তন ঘটে। চারজন প্রিয় বন্ধুর মধ্যে উপযুক্ত পাত্রটি বেছে নেয়ার এক অদ্ভুত মানসিক টানাপোড়েন। বাকিটা তো পুরো সিনেমা দেখার পরেই জানা যাবে। কাহিনীর মন মাতানো সংলাপের পাশাপাশি শ্রুতিমধুর গানের মূর্ছনা দিবে সিনেমাটিতে অন্যমাত্রা। হাস্যরস আর বাস্তবতার নিরিখে চমৎকার একটি সিনেমা এই ‘রংমিলান্তি’। কিপ রিডিং…

গো টু টপ