Daily archive

April 14, 2017

শুভ নববর্ষ ১৪২৪ শুভ হোক

অথোর- টপিক- অপিনিয়ন

“এসো হে বৈশাখ, এসো এসো/তাপস নিঃশ্বাস বায়ে মুমূর্ষরে দাও উড়ায়ে/বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক।/যাক পুরাতন স্মৃতি যাক ভুলে যাওয়া গীতি/অশ্রু বাষ্পে মুছে যাক জরা/অ্গ্নীস্নানে শূচি হোক ধরা।”

রাতের আঁধারের ঘোমটা সরিয়ে ভোরের আকাশ-দশদিগন্তে আলোর নাচন ছড়িয়ে যে সূর্যটা উঠেছে; সে সূর্য সবার জীবনে বয়ে আনুক নতুন এক সুখানুভূতি। স্বাগত হে বাংলা নববর্ষ ১৪২৪। জীবন বাঁকের্ আরও একটা বছরের শেষ হলো, শুরু হলো নতুন আর একটা। দূঃখ-বেদনা আর ব্যাথাহতের পর জীবনের নতুন রূপ দেয়ার এক গভীর প্রত্যয় নিয়ে বৈশাখের রুদ্র পদভারে ঘোষিত নতুনের কেতন উড়িয়ে ১৪২৪ বঙ্গাব্দ আমাদের জীবনে বয়ে আনুক এক নতুন অধ্যায়। বাঙ্গালী সংস্কৃতি আর ঐতিহ্যে পয়েলা বৈশাখের গুরুত্ব অপরিসীম। নববর্ষকে কেন্দ্র করে আমরা কতইনা স্বপ্ন বুনি। স্বপ্ন বুনি নতুনের, ভবিষ্যতের; প্রত্যাশা করি বিগত বছরের চেয়ে সুন্দরের। এত স্বপ্ন আর প্রত্যাশায় ঘেরা নববর্ষের শুরুটাও যেন হয় বিগত সময়ের চেয়ে আলাদা। আসুননা আমরা সবাই মিলে একটি অনন্য ও ব্যতিক্রমধর্মী বছর শুরু করি। অঙ্গিকার করি পরিবর্তনের-শুধু নিজেকে নয় গোটা সমাজকে, জাতীকে। এরই মানসে নিন্মোক্ত প্রস্তাবের আলোকে আমরা সাজাই নতুন বছরের প্রথম দিনকে; সার্থক করে তুলি এ দিনের গুরুত্বকে।

১. আমাদের প্রথম অঙ্গিকার হোক অন্ততঃ এ নববর্ষ যেন শুধু মাত্র আনন্দ ফূর্তি আর উৎসব-উদযাপনের মধ্যে শেষ হয়ে না যায়। এ সময়ে আমাদের জনগোষ্ঠির মধ্যে বাঙ্গালী সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য চর্চার যে আগ্রহ দেখা যায় তা যেন দিন শেষ হওয়ার সাথে শেষ হয়ে না যায়।


পরিশেষে একটা কথা বলতে চাই, পয়েলা বৈশাখ শুধু সূচনা করেনি একটি মাসের, আমাদেরকে এনে দিয়েছে একটি নুতন বছর। বাঙ্গালী সংস্কৃতিতে পয়েলা বৈশাখ এবং নববর্ষ জাতীয় সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। এ সংস্কৃতি যেন কোন কারণে কুলষিত না হয়, পরিণত না হয় অপসংস্কৃতিতে সে দায়িত্ব আমাদের সকলের। এটা আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি, একান্ত আপনার ঐতিহ্য। নববর্ষকে কেন্দ্র করে আমাদের সব আয়োজন যেন শুধু ক্ষণিকের আনন্দদায়ক আর উপভোগ্য না হয় বরং নতুন বছরের সূচনার মত নতুন কিছু স্বপ্নেরও যেন সূচনা হয় এ দিনে।


কিপ রিডিং…

গো টু টপ