Monthly archive

July 2017

বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ১০ মুসলিম ব্যক্তিত্ব

অথোর- টপিক- ওয়ার্ল্ড/হাইলাইটস

দ্য ওয়ার্ল্ডস ফাইভ হানড্রেড মোস্ট ইনফ্লুনসিয়াল মুসলিম-জর্ডানের রাজধানী আম্মানে অবস্থিত দ্য রয়েল ইসলামিক স্ট্যাটিজিক স্টাডিজ সেন্টার দ্বারা পরিচালিত একটি আয়োজন। যারা মূলত বিশ্বব্যাপি প্রতিবছর প্রভাশালী মুসলিম ব্যক্তিত্ব নির্বাচনকেন্দ্রিক একটি জরিপ পরিচালনা করে থাকে। এটি একটি সম্পূর্ণ বেসরকারি স্বাধীন গবেষণা সংস্থা। প্রতি বছরের মতো ২০১৭ সালে পরিচালিত জরিপে উঠে এসেছে বিশ্বময় ছড়িয়ে থাকা ৫০০ প্রভাবশালী মুসলিম ব্যক্তিত্বের নাম। ৫০০ প্রভাবশালী মুসলিম ব্যক্তিত্বের নাম নির্বাচন করার পর আরো দুই ধাপে দুটি জরিপ অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম ধাপে সবচেয়ে প্রভাবশালী ৫০ জন ব্যক্তিত্বকে নির্বাচন করা হয় এবং দ্বিতীয় ধাপে সবচেয়ে প্রভাবশালী ১০জন ব্যক্তিত্বকে নির্বাচন করা হয়। ২০১৭ সালের নির্বাচিত বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ১০জন মুসলিম ব্যক্তিত্ব কারা নির্বাচিত হয়েছেন? চলুন জেনে নেই বিশ্বের সবেচেয়ে প্রভাবশালী ১০জন মুসলিম ব্যক্তিত্বের নাম ও সংক্ষিপ্ত পরিচয়।

১. অধ্যাপক ড. শেখ আহমদ মুহাম্মদ আল-তৈয়ব: বিশ্বের সবেচেয় প্রভাবশালী ১০জন মুসলিম ব্যক্তিত্বের তালিকার প্রথমে রয়েছেন তিনি। ২০১৬ সালের জরিপে তিনি দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন। তার দেশ মিশর। জন্ম- ১৯৪৬ সালে। মূলত প্রশাসনিক ক্ষমতার কারণে তিনি প্রভাশালী নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি একজন ঐতিহ্যবাহী সুন্নি মুসলিম। বর্তমানে তিনি আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রান্ড শায়খ এবং আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদের গ্রান্ড ইমাম হিসেবে দায়িত্বরত রয়েছেন। এরপূর্বে তিনি আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রায় সাত বছর এবং মিশরে সবচেয়ে শক্তিশালী ধর্মীয় নেতা বা গ্র্যান্ড মুফতি হিসাবে দুই বছর দায়িত্ব পালন করেছেন।

২. কিং আবদুল্লাহ (দ্বিতীয়) ইবনে আল হুসাইন: বিশ্বের সবেচেয় প্রভাবশালী ১০জন মুসলিম ব্যক্তিত্বের তালিকার দ্বিতীয় ব্যক্তিত্ব তিনি। ২০১৬ সালের জরিপে তিনি প্রথম ছিলেন। তার দেশ জর্ডান। জন্ম- ১৯৬২ সাল অনুযায়ী বর্তমানে তার বয়স ৫৪ বছর। রাজনীতি এবং ঐতিহ্যবাহী বংশের বিবেচনায় তিনি প্রভাবশালী নির্বাচিত। তিনিও একজন ঐতিহ্যবাহী সুন্নি মুসলিম নেতা। বর্তমানে তিনি জর্ডানের হাশেমাইট কিংডমের রাজা এবং জেরুজালেমের বিভিন্ন অঞ্চলের জিম্মাদার হিসেবে দায়িত্বরত আছেন। মুসলিম বিশ্বের দুটি বিরাট দ্বন্দ্ব নিরসনে ভূমিকা পালন করার মাধ্যমে কিং আবদুল্লাহ (দ্বিতীয়) বিশ্বব্যাপী পরিচিতি অর্জন করতে সক্ষম হন।

৩. কিং সালমান বিন আবদুল আজিজ কিন আল সৌদ: বিশ্বের সবেচেয় প্রভাবশালী ১০জন মুসলিম ব্যক্তিত্বের তালিকার তৃতীয় স্থান অধিকার করে আছেন তিনি। ২০১৬ সালের জরিপেও তিনি তৃতীয় স্থানে ছিলেন। তার দেশ সৌদি আরব। জন্ম- ৩১ ডিসেম্বর ১৯৩৫ মোতাবেক তার বয়স ৮০ বছর। রাজনৈতিক ক্ষমতার বিবেচনায় তিনি প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। কিং সালমান বিন আবদুল আজিজ মর্ডারেট সালাফি মুসলিম নেতা। বর্তমানে তিনি রয়েল সৌদি আরবের বাদশাহ এবং সৌদি আরবে অবস্থিত পবিত্র দুই মসজিদের জিম্মাদার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে তিনি এই পদে আসীন হন। এর পূর্বে তিনি ক্রাউন প্রিন্স হিসেবে সৌদি সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। কিপ রিডিং…

International Recognise CMMI Training Course Organised by UNICERT

অথোর- টপিক- কর্পোরেট

A CMMI Institute, USA approved 3 day course“ Introduction to CMMI” has been organized by the United Certification Services Limited (UNICERT), at the Conference Hall of Software Technology Park, Janata Tower, Kawran bazar, Dhaka on 9 – 11 July 2017. UNICERT is only one accredited ISO Certification Body and CMMI Institute partner in Bangladesh.


At the end of the program certificates have been awarded to the participant’s handovered by Mr. A.N.M Shafiqul Islam, Project Director of the HTPA (Hi Tech Park Authority) under the ICT Division.


The objective of this program was to provide an overview of CMMI (Capability Maturity Model Integration) Model including implementation aspects. From the session, participants gathered working knowledge on these models, frameworks and practical implementation guidelines within the organization. The three-day program was attended by 20 participants, who are senior members of the IT Companies, selected by the High Tech Park Authority (HTPA) of the Government of Bangladesh to provide quality certification programme of CMMI. কিপ রিডিং…

ক্ষুদে দম্পতি!

অথোর- টপিক- ভিডিওগ্রাফি/লিড স্টোরি

গিনেসওয়ার্ল্ড রেকর্ড-০৭


In celebration of GWR Day 2016, the title holders for Shortest married couple have travelled to London this week to visit the London HQ of Guinness World Records.
নিজেদেরকে পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষুদে দম্পতি হিসেবে রেকর্ডভুক্ত করেছেন ব্রাজিলের এই ক্ষুদে দম্পতি। প্রায় আট বছর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয় হয় দু’জনের। সেই থেকে শুরু হয় চুটিয়ে প্রেম। এরপর বিয়ে। আর এই বিয়ের মাধ্যমেই বিশ্বের ক্ষুদে দম্পতি হিসেবে গিনেস বুকে নাম লেখালেন তারা।

ফুটবলের দেশ ব্রাজিলের পাওলো গেব্রিয়েল ডা সিলভা ও কেটয়ুসিয়া লাই হোসিনো বেরোস। ১৭ নভেম্বর  ২০১৬ সালে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়৷ এর পরই বিশ্বের ক্ষুদ্রতম দম্পতি হিসেবে গিনিস বুকে নাম উঠে যায় তাদের। তাদের উচ্চতার কারণেই এই অর্জন। দু’জনের উচ্চতার যোগফল ৭১.৪২ ইঞ্চি৷ এর আগে যারা এই জায়গা অধিকার করেছিলেন, সবাইকে হারিয়ে এবার তাদের থেকে আরও ছোট এই দম্পতি সেই জায়গা দখল করে নিলেন৷  ইংরেজিতে লেখা মূল ফিচারটি পড়তে ক্লিক করুন এখানে…

পাওলো বহুদিন ধরেই, এই উচ্চতার জন্য, নিজের নাম গিনেস বুকে তুলতে চাইছিলেন৷ তার সেই ইচ্ছা এবার বাস্তবায়িত হলো৷ শুধু তাই নয়, যায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের ছবি ভাইরালও হয়। বর্তমানে এই দম্পতি খুবই সুখ-শান্তিতে বাস করছেন তাদের আপন দেশে।  কিপ রিডিং…

গো টু টপ