Daily archive

December 07, 2017

ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট আলী আবদুল্লাহ সালেহর অজানা ইতিহাস

অথোর- টপিক-

আলী আবদুল্লাহ সালেহ- একজন ইয়েমেনী রাজনীতিবিদ। একজন মুসলিম নেতা। প্রসিদ্ধ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। রাষ্ট্রপতি আহমদ আল-ঘশ্মির হত্যার পর ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন যিনি। তিনি ১৭ জুলাই ১৯৭৮ সালে মাত্র ৩৬ বছর বয়সে উত্তর ইয়েমেনের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন এবং ১৯৯০ সালের ২২ মে উত্তর ইয়েমেনের সাথে দক্ষিণ ইয়েমেনের মিলিত হওয়ার পর আবদুল্লাহ সালেহ নতুন রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য রাজনৈতিক দল জেনারেল পিপলস কংগ্রেসের পার্টি পক্ষ থেকে সাবেক প্রেসিডেন্টের আবদুল্লাহ সালেহর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। ৭৫ বছর বয়সী এই শক্তিশালী নেতা প্রায় তিন দশক ধরে ইয়েমেন শাসন করার পর ২০১২ সালে রাজনৈতিক চাপের মুখে ক্ষমতাচ্যুত হন।

আলী আব্দুল্লাহ সালেহ ১৯৪২ সালের ২১ মার্চ ইয়েমেনের বেয়াত এল-আহমার গ্রামে একটি দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৫৮ সালে উত্তর ইয়েমেনী সশস্ত্র বাহিনীতে একটি পদাতিক সৈনিক হিসেবে যোগদান করেন। এরপূর্বে তিনি মালেমা গ্রামে প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করেন। এরপর ১৯৬০ সালে উত্তর ইয়েমেন মিলিটারি একাডেমিতে ভর্তি হন। তিন বছর পর ১৯৬৩ সালে, তিনি আমর্ড কর্পসে দ্বিতীয় লেফটেন্যান্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আলী আবদুল্লাহ সালেহ নাসরীর অনুপ্রাণিত আর্মি অভ্যুত্থানে অংশ নেন, যা কিং মুহম্মদ আল-বদরকে অপসারণ ও ইয়েমেন আরবি রিপাবলিক প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সহায়কেআন্দোলনি ছিল। ১৯৭৮ সালের ১৭  জুলাই ইয়েমেনের আরব প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার জন্য সংসদ সদস্য নির্বাচন হন। একই সাথে সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান ও পদাতিক বাহিনীর পদে এবং সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চীফ পদে দায়িত্ব পালন করেন। কিপ রিডিং…

গো টু টপ