Tag archive

ইসলামি বই

২০১৭ সালে সর্বাধিক বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বই

নবী করিম (সা.) এক হাদিসে উল্লেখ করেছেন, এক ঘণ্টা জ্ঞান অর্জন করা সারা রাত ইবাদত করার থেকে উত্তম। এখানে জ্ঞান অর্জন করা বলতে মূলত বই পড়ার ওপর সর্বাধিক তাগিদ দেয়া হয়েছে।

আল্লামা শেখ সাদী বলেছেন, জ্ঞানের জন্য তুমি মোমের মতো গলে যাও। কারণ জ্ঞান ছাড়া তুমি খোদাকে চিনতে পারবে না। একজন সৃষ্টিশীল মানুষ পৃথিবীতে বইয়ের বিকল্প কিছুই চিন্তা করতে পারেন না। সমাজ বদলাতে হলে বই পড়ার বিকল্প নেই। বই মানুষের জীবন সঙ্গী। বই অবসরের প্রিয় বন্ধু। বই পাঠ মানুষকে সত্য পথে চলতে, মানবতার কল্যাণে অনুপ্রাণিত করে। বই সুখের সময় মানুষের পাশে থাকে। দুঃখের সময় মনোবল বাড়াতে সাহায্য করে। যে লোকটি বইকে নিত্যদিনের সঙ্গী বানিয়েছে, সেই লোকটি সমাজের অন্য ১০ জন মানুষ চেয়ে ভিন্ন। তার মন-মনন আলাদা। চিন্তাচেতনা ভিন্ন। সহিষ্ণুতা আর বিশ্বাসের ধরনটাও আলাদা। ইচ্ছা করলেই বিবেক বিক্রি করে তিনি নষ্ট পথে ধাবিত হতে পারেন না। এক কথায় যিনি জ্ঞানী তিনি কখনই সমাজ বিপর্যয়ী কাজে অংশ নিতে পারেন না। একজন পাঠক মাত্রই জ্ঞানের সাধক। সৈয়দ মুজতবা আলী বই পড়া প্রবন্ধে লিখেছেন- বই কিনে কেউ তো কখনো দেউলিয়া হয়নি। বই কেনার বাজেট যদি আপনি তিনগুণও বাড়িয়ে দেন, তবুও তো আপনার দেউলিয়া হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

বাংলাদেশে গড়ে ওঠা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর মাঝে বই অন্যতম একটি প্রতিষ্ঠান রকমারি.কম। রকমারি.কম হচ্ছে বাংলাদেশে অন্যতম জনপ্রিয় পণ্য কেনার বা ই-বাণিজ্য প্রতিষ্ঠান। রকমারি.কম বলতে গোটা বাংলার মানুষের কাছে যে কথাটি স্পষ্ট সেটা হলো- বাংলাদেশসহ পৃথিবীর যে কোনো প্রান্ত থেকে প্রকাশিত বই ঘরে বসে কিনতে চাইলে রকমারি.কমের বিকল্প নেই। রকমারি.কম থেকে ২০১৭ সালে যে সব বাংলা ইসলামী বই বেশি বিক্রি হয়েছে, তার মধ্য থেকে সর্বাধিক বিক্রিত ১০টি ইসলামী বইয়ের তথ্য নিন্মে তুলে ধরছি।

১০. সিরাতে রাসুলুল্লাহ (সা.) মহানবীর প্রথম বিশদ জীবনী। বইটির মূল লেখক, ইবনে ইসহাক। আর অনুবাদ করেছেন শহীদ আখন্দ। সিরাতে রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর ওপর লেখা বইটি ইবনে ইসহাককে ইতিহাসে অমরত্ব দিয়েছে। ইসলাম ধর্ম, মহানবী (সা.) এবং সে সময়ের আরবের ইতিহাস জানার জন্য সারা পৃথিবীর নিবেদিতপ্রাণ ধর্মানুসারী থেকে নিষ্ঠাবান গবেষক পর্যন্ত সবাই এ বইয়ের কাছে ফিরে ফিরে এসেছেন। অসংখ্য ধর্মীয় ও গবেষণাগ্রন্থের মধ্য দিয়ে নানা ভাষায় এ বইয়ের উদ্ধৃতি ও বিশ্লেষণ পৃথিবীর কোনায় কোনায় ছড়িয়ে পড়েছে। মহানবী (সা.) মৃত্যুর পর লেখা এ বইটি তার প্রথম বিশদ জীবনী। বইটি প্রকাশ করেছে প্রথমা প্রকাশনী। বইটির মূল-১২৭৫ টাকা। ২০১৭ সালে রকমারি.কম থেকে যে সব ইসলামী বই সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে, সেই তালিকায় দশম স্থানে রয়েছে এই বইটি। রকমারি.কম থেকে বইটি কিনতে চাইলে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে এবং অর্ডার করুন। কিপ রিডিং…

দুই মলাটে ২৮৯ জন মনীষীর জীবনীতথ্য

বই পরিচিতি : ইসলামে শ্রেষ্ঠ যাঁরা। এই বইটিতে রয়েছে মহাকালের মহা মনীষীদের সংক্ষিপ্ত জীবনালেখ্য। এদের কেউ সাহাবি, তাবেয়িন, মুজাহিদিন, উলামা, খলিফা, কবি- সাহিত্যিক ও মহীয়সী নারীবৃন্দ। বইটিতে এই ব্যক্তিত্বদের জীবনের সারসংক্ষেপ তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। যেমন, নাম, উপনাম, উপাধি, জন্ম-তারিখ, বাণী চিরন্তন, তাদের নিয়ে অন্যের মন্তব্য কিংবা সাহাবি হয়ে থাকলে রাসূল (সা.) থেকে তার বর্ণিত উল্লেখযোগ্য একটি হাদিস। সর্বোপরি তাদের জীবনীতথ্য বর্ণনার আপ্রাণ চেষ্টা করা হয়েছে। যাতে করে পাঠক দুই মলাট খোলা মাত্রই এক নিঃশ্বাসে মনীষীদের জীবনী পড়ে দম নিতে পারেন।

প্রকাশক যা বললেন : এই গুরুত্বপূর্ণ অনুবাদকর্মটি পাঠকের হাতে তুলে দিতে পেরে একজন প্রকাশক হিসেবে আমি খুবই আনন্দিত। দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদ, উৎকৃষ্ট মুদ্রণ, অফসেট কাগজ ও মজবুত বাঁধাইয়ের মোড়কে বইটি তুলে ধরার চেষ্ট  করেছি। কোথাও কোনো মুদ্রণপ্রমাদ পরিলক্ষিত হলে জানিয়ে দেয়ার অনুরোধ রইলো।

কিপ রিডিং…

বিন্দুহীন বর্ণে রচিত ঐতিহাসিক এক সীরাতগ্রন্থ

প্রিয়নবি (সা.) শানে ভালোবাসার প্রকাশ ঘটাতে কত মানুষ কত কিছুই না করেছে। কত আয়োজন আর কত আবিস্কার ও রচনায় বিমুগ্ধ যুগ পাড় করেছেন কত নবিপ্রেমিক। মহানবির (সা.) প্রতি ভালোবাস প্রকাশের এমনই একটি বিরল আয়োজন ঐতিহাসিক একটি সীরাতগ্রন্থ।

বুকের বাগানে গোলাপ হয়ে ফুটে ওঠা প্রিয় সীরাতগ্রন্থটির নাম ‘হাদিয়ে আলম’। উর্দু ভাষায় লিখিত চারশত পৃষ্ঠার একটি বিস্ময়কর নবীজীবন। এই গ্রন্থে নোকতাযুক্ত (আরবী বিন্দু) কোনো হরফ বা বর্ণ ব্যবহার করা হয় নি। আশ্চর্যতম ঐতিহাসিক এই গ্রন্থটি লিখেছেন মুহাম্মদ ওয়ালী রাযী । মুফতি শফী (রহ.)-এর দ্বিতীয় পুত্র তিনি। রাফী উসমানী ও তাকী উসমানীর বড় ভাই মুহাম্মাদ ওয়ালী রাযী। একজন মানুষের পক্ষে একশো তলা আকাশছোঁয়া প্রসাদ বানানো সহজ কিন্তু বিন্দুহীন বর্ণে একটি গ্রন্থ রচনা করা সত্যিই বিরল কাজ।

এত সাবলীল সহজ উর্দুতে লেখা, পড়তে মোটেও হোঁচট খেতে হয় না; অথচ বিস্ময়াভিভূত চোখ বর্ণে বর্ণে বিমূঢ় হয়ে থেমে দাঁড়ায়! আমাদের বহুল ব্যবহৃত দরুদবাক্য সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম লিখতে আলাইহি বিন্দু ব্যবহার করতে হয়। তাই লেখক দরূদবাক্যটি এভাবে লিখেছেন সাল্লাল্লাহু আলা রাসূলিহি ওয়া সাল্লাম।



কিপ রিডিং…

গো টু টপ