Tag archive

সেরা মসজিদ

এক ডিমের মসজিদ



ফয়সল চৌধুরী। লোকমুখে প্রচার পৃথিবীতে একটি ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন বেঙ্গির মা নামে এক মহিলা। ‘ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়’ প্রবাদ বাক্যটি যেমন সত্য, তেমনি লক্ষ্য যদি থাকে আপনার অটুট একদিন সফলতা আসবেই। কবি গুরু রবিন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায় বলতে হয় ‘ছোট ছোট বালু কণা, বিন্দু বিন্দু জল, গড়ে তুলে মাহাদেশ সাগর অতল। এই কবিতাটুকু পড়লে মনে হয় কবিগুরুর কোন বাস্তব ঘটনা থেকেই কবিতাটি রচনা করেছিলেন। তেমনি আচার্য্যজনক এক ঘটনা ঘটেছে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে। সবাইকে অবাক করে দিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছেন এক মহিলা। তাকে সবাই ‘বেঙ্গির মা’ বলে ডাকলেও একটি মহৎ উদ্দ্যোগ নিয়ে এক আন্ডা (ডিম) গড়ে তুলেছেন একটি মসজিদ। এলাকাবাসী নাম দিয়েছেন এক আন্ডা’র মসজিদ। মসজিদটির নাম এখন সবার মুখে। এক আন্ডা থেকে কি ভাবে এক মসজিদ সে কথা শুনলে সবাই অবাক হন। মানুষের অসাধ্য কিছু নেই, মানুষ সাধনা করে আকাশে উড়েছে, পৌঁছেছে চাঁদের দেশে। তেমনি এক বেঙ্গির মা বাংলাদেশে জন্ম দিয়েছে এক ইতিহাস। আর তার রেখে যাওয়া স্মৃতি দেখার জন্য প্রতিদিন শত শত মানুষ আসে বেঙ্গির এক আন্ড’র (ডিম) মসজিদ দেখতে।

জানা যায়, জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের প্রজাতপুর গ্রামের তৎকালীন এক কৃষক সরফ উল্লার স্ত্রী বেঙ্গির মা ১৯০২ ইং, ১৩০৭ বাংলায় প্রজাতপুর ও লালপুর দুটি গ্রামের মাধ্যবর্তী স্থানে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন। মসজিদ নির্মাণের শেষে এলাকাবাসীকে জড়িত করে মসজিদটির নাম করণ করেন ‘এক আন্ডা (ডিম)র মসজিদ’। তখন মসজিদের নামকরণ নিয়ে জনতার মধ্যে প্রশ্ন জাগলে তিনি ঘটনাটি খুলে বলেন। বেঙ্গির মা এলাকাবাসীকে জানান, তিনি একটি মুরগীর ডিম মসজিদের নামে মান্যত করে রাখেন। ঐ ডিমটি থেকে মুরগীর উতলে দিলে তা থেকে একটি বাচ্চার জন্ম হয়। পরবর্তীতে ঐ বাচ্চাটি বড় হলে তা থেকে আরো ৭টি ডিম হয়। পরবর্তীতে ঐ ৭টি ডিম থেকে ৭টি বাচ্চার জন্ম হয়। এভাবে এক পর্যায়ে মুরগীর খামার গড়ে তুলেন। ঐ খামারের মুরগী বিক্রি করে বেঙ্গির মা টাকা জমাতে থাকেন। তৎকালীন সময়ে তিনি এক লক্ষ টাকা জমা করে মসজিদটি তার স্বামীর মাধ্যমে নির্মাণ করে দেন। বেঙ্গির মা ছিলেন নিঃসন্তান। ঘটনা এলাকায় জানাজানি হওয়ার পরে মসজিদটির নাম সর্বত্র ছড়িয়ে পরে। মসজিদ নির্মাণের শত বছর অতিবাহিত হলেও এখন এ কাহিনী সবার মুখে মুখে। অনেকই মনে করেন একটি আন্ড (ডিম) থেকে একটি মসজিদ নির্মাণের ঘটনা ইতিহাসে এই প্রথম। তাও আবার একজন মহিলা কর্তৃক মসজিদ নির্মাণ সবাইকে অবাক করেছে। প্রজাতপুর ও লালপুর গ্রামবাসী ২০০৯ সালে মসজিদটির বর্ধিত অংশ সংস্কার করেছেন। কিন্তু বেঙ্গির মার মুল মসজিদটি এখনও বিদ্যমান রয়েছে। চলতি বছরে মসজিদটি নতুন করে রং করা হয়েছে।

এক আন্ডা (ডিম) এর মসজিদের খতিব মাওলানা আলমাছ উদ্দিন বলেন, আমি মসজিদ নির্মাণে বেঙ্গির মার এক এন্ডার গল্প শুনে অবাক হয়েছি। ইচ্ছা থাকলে মানুষ কিনা করতে পারে। তার ছেলে সন্তান না থাকলেও এই মসজিদটি পৃথিবী যতদিন থাকবে ততদিন স্বাক্ষী হয়ে রবে। বেঙ্গির মার প-পৌত্র প্রজাতপুর গ্রামের রাকিল হোসেন বলেন আমার পুর্ব পুরুষ নিঃসন্তান সরফ উল্লার স্ত্রী বেঙ্গির মা এই মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা। আমি আমার বাবার কাছ থেকে শুনেছি পরিদাদী বেঙ্গির মা একটি আন্ডা থেকেই এই মসজিদটি নির্মাণ করেন। বর্তমানে এলাকাবাসী কয়েক লক্ষ টাকা ব্যয় করে মসজিদের সুন্দর্য্য বৃদ্ধির জন্য সংস্কার করেছেন। মসজিদের মোতাওল্লী লন্ডন প্রবাসী আব্দুল হারিছ। কিন্তু তিনি দেশের বাহিরে থাকায় থাকায় তাকে পাওয়া যায়নি। প্রজাতপুর গ্রামের প্রবীণ উলফর উল্লাহ বলেন, আমাদের গ্রামের বেঙ্গির মা এমন একটি কাজ করেছেন, যা সারা জীবনেও ভুলার মত নয়। আমি বেঙ্গির মার কাছ থেকে শুনেছিলাম তিনি একটি ডিম থেকে একটি মুরগীর খামাড় গড়ে তুলেছিলেন। ঐ খামারের একটি টাকাও তার সংসারের কাজে ব্যয় করেন নি। সম্পূর্ণ টাকা দিয়ে মসজিদ নির্মাণ করেন। কিপ রিডিং…

আজারবাইজানের সেরা পাঁচ মসজিদ

ককেশীয় অঞ্চলের দেশ আজারবাইজান। পূর্ব ইউরোপ ও পশ্চিম এশিয়ার সীমান্ত বরাবর এর অবস্থান। পূর্বে কাস্পিয়ান সাগর, উত্তরে রাশিয়া, উত্তর-পশ্চিমে জর্জিয়া, পশ্চিমে আর্মেনিয়া এবং দক্ষিণে ইরান। উত্তর-পশ্চিমে তুরস্কের সঙ্গেও এর সংক্ষিপ্ত সীমান্ত রয়েছে। আজারবাইজান তেল সম্পদে সমৃদ্ধ।


বিউটিফুল মস্ক ইন দ্য ওয়ার্ল্ড-০৮। আজারবাইজানের সেরা পাঁচ মসজিদ। লিখছেন আবু সাঈদ যোবায়ের


অবকাঠামো এবং সামরিক খাতে উন্নয়ন-সব ক্ষেত্রেই এই তেলের অর্থই ব্যবহার করে দেশটি। তেল সম্পদের কারণেই দেশটি বেশ সমৃদ্ধ এবং এর আঞ্চলিক প্রভাবও বাড়ছে। তবে একই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে দুর্নীতি ও দারিদ্র্য, যা দেশটির ক্রমবর্ধমান উন্নয়নকে ব্যাহত করছে।

এ ছাড়া সরকারের দিক থেকে মানবাধিকারকর্মী এবং সাংবাদিকদের মুখ বন্ধ করার একটি চেষ্টা চলছে বলেও অভিযোগ রয়েছে, যা দেশটির একেবারে প্রারম্ভিক পর্যায়ে থাকা গণতন্ত্রকে হুমকির মুখে ফেলছে বলে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। গত দুই দশকে অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য আজারবাইজান অন্তর্জাতিক অঙ্গনে ভূয়সী প্রশংসা পেয়েছে। তবে গণমাধ্যমের টুঁটি টিপে ধরার চেষ্টা এই অগ্রগতিকে অনেকাংশেই ম্লান করে দিয়েছে। ‘রিপোর্টারস উইদাউট বর্ডার’ নামে সাংবাদিকদের সংগঠন আজারবাইজানকে মোট ১৮০টি দেশ নিয়ে তৈরি করা এক সূচকে ১৬২তম স্থানে রেখেছে। কিপ রিডিং…

আর্জেন্টিনার সেরা মসজিদ

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনা। এর উত্তরে বলিভিয়া ও প্যারাগুয়ে, উত্তর-পূর্বে ব্রাজিল, পূর্বে উরুগুয়ে ও দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগর, পশ্চিমে চিলি। প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ আর্জেন্টিনার একটি শক্তিশালী, শিক্ষিত কর্মীবাহিনী রয়েছে। দক্ষিণ আমেরিকার অন্যতম সমৃদ্ধ অর্থনীতি তাদের। ২০০১ সালে মন্দার কারণে দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠী দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে যায়। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সহযোগিতায় সেই মন্দা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হলেও দারিদ্র্য এখনো দেশটির জন্য একটি বড় সমস্যা।


বিউটিফুল মস্ক ইন দ্য ওয়ার্ল্ড-০৭। আর্জেন্টিনার সেরা মসজিদ। লিখেছেন আবু সাঈদ যোবায়ের


কিং ফাহাদ ইসলামিক সেন্টার : এই ইসলামিক সেন্টারটি আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনোস আইরেস এ অবস্থিত। দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট কার্লোস মেনেম ১৯৯৫ সালে এক রাষ্ট্রীয় সফরে সৌদি আরবে যান। তখন এক রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে ৩৪০০ বর্গ মিটার পরিমাণ জমি সৌদি সরকারকে প্রদান করে।পরবর্তীতে সৌদি সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় এখানে একটি বৃহৎ আয়তনের মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টার গড়ে তোলা হয়। ২০০০ সালে এই মসজিদটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়। প্রখ্যাত সৌদি স্থপতি জুহায়ের ফাওয়াজ এর ডিজাইন করেন। কিপ রিডিং…

চাদের সেরা তিন মসজিদ

চাদ- সরকারী নাম চাদ প্রজাতন্ত্র। মধ্য আফ্রিকার একটি স্থলবেষ্টিত রাষ্ট্র। এর উত্তরে লিবিয়া, পূর্বে সুদান, দক্ষিণে মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র, দক্ষিণ-পশ্চিমে ক্যামেরুন ও নাইজেরিয়া, এবং পশ্চিমে নাইজার। সমূদ্র থেকে দূরে অবস্থিত বলে এবং মরু জলবায়ুর কারণে চাদকে “আফ্রিকার মৃত হৃদয়” বলেও মাঝে মাঝে অভিহিত করা হয়। চাদকে তিনটি ভৌগোলিক অঞ্চলে ভাগ করা যায়: উত্তরের সাহারা মরুভূমি অঞ্চল, মধ্যভাগের ঊষর সাহেলীয় বেষ্টনী, এবং দক্ষিণের অপেক্ষাকৃত উর্বর সুদানীয় সাভানা তৃণভূমি অঞ্চল।

চাদ হ্রদ দেশটির বৃহত্তম এবং আফ্রিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম জলাশয়। এই হ্রদের নামের দেশটির চাদ নামকরণ করা হয়েছে। সাহারা অঞ্চলে অবস্থিত তিবেস্তি পর্বতমালার এমি কৌসি চাদের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ। রাজধানী এনজামেনা দেশটির বৃহত্তম শহর। চাদে ২০০ বেশি ধরনের জাতিগত ও ভাষাভিত্তিক গোষ্ঠীর বাস। ফরাসি ও আরবি এখানকার সরকারি ভাষা। ইসলাম ধর্ম সবচেয়ে বেশি প্রচলিত। মধ্য আফ্রিকার মুসলিম দেশ চাদ। এর সেরা ও নান্দনিক কয়েকটি মসজিদ নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন।

১. এনজামেনা বড় মসজিদ : এটি চাদের সবচেয়ে বড় মসজিদ। রাজধানী এনজামেনায় অবস্থিত। সৌন্দর্য ও নান্দনিকতার বিচারেও এটি সেরা। এই মসজিদ কমপ্লেক্সে ইসলামি শিক্ষাসহ আরো বেশ কিছু সেবা কার্যক্রম পরিচালিত হয়। কিপ রিডিং…

ইন্দোনেশিয়ার বিখ্যাত পাঁচ মসজিদ

ইন্দোনেশিয়া দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একটি দ্বীপ রাষ্ট্র। ল্যাটিন ইন্ডাস থেকে ইন্দোনেশিয়া শব্দটি এসেছে। ল্যাটিন শব্দটির অর্থ দাঁড়ায় দ্বীপ। ডাচ উপনিবেশের কারণে তাদের দেয়া নামটি ওই অঞ্চলের জন্য প্রচলিত হয়। ১৯০০ সাল থেকে জায়গাটি ইন্দোনেশিয়া নামে পরিচিতি পায়। প্রায় ৫,০০০ দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত এই দেশটি পৃথিবীর বৃহত্তম মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাষ্ট্র। এর রাজধানীর নাম জাকার্তা। সরকারী ভাবে ইন্দোনেশিয়ার নাম ইন্দোনেশীয় প্রজাতন্ত্রী (ইন্দোনেশীয় ভাষায় Republik Indonesia).

ইন্দোনেশিয়ায় আরও রয়েছে অনেক নান্দনিক মসজিদ ও সুন্দ সুন্দর দর্শনীয়স্থান। রয়েছে অনেক পর্বত এবং এদের মধ্যে কিছু কিছু আবার আগ্নেয়গিরিও। এগুলিতে অনেক পর্যটক পর্বতারোহণ করতে ভালবাসেন। কিপ রিডিং…

বাহরাইনের সেরা পাঁচ মসজিদ

বাহরাইন মধ্যপ্রাচ্যের একটি দ্বীপ রাষ্ট্র। বাহরাইন পারস্য উপসাগরের পশ্চিম অংশের ৩৬টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত। এর পূর্বে সৌদী আরব ও পশ্চিমে কাতার। সবচেয়ে বড় দ্বীপটিও বাহরাইন নামে পরিচিত এবং এতে দেশটির বৃহত্তম শহর ও রাজধানী মানামা অবস্থিত।

প্রায় ৫,০০০ বছর আগেও বাহরাইন একটি বাণিজ্য কেন্দ্র ছিল। সবসময়ই এটি শক্তিশালী প্রতিবেশীদের অধীনস্থ ছিল। ১৭শ শতকে এটি ইরানের দখলে আসে। ১৭৮৩ সালে মধ্য সৌদী আরবের আল-খলিফা পরিবার নিজেদেরকে বাহরাইনের শাসক হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে এবং তখন থেকে তারাই দেশটিকে শাসন করে আসছে। ১৯শ শতকের কিছু সন্ধিচুক্তির ফলে যুক্তরাজ্য দেশটির প্রতিরক্ষা ও বৈদেশিক সম্পর্ক রক্ষার দায়িত্ব পায়। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার আগ পর্যন্ত বাহরাইন ব্রিটিশ প্রভাবাধীন ছিল।

বাহরাইনের জনসংখ্যার ৬০ শতাংশেরও বেশি সেখানেই জন্ম-নেওয়া। এছাড়া বাহরাইনে শিয়া মুসলিমদের সংখ্যা সুন্নী মুসলিমদের প্রায় দ্বিগুণ। তবে সুন্নীরা বাহরাইনের সরকার নিয়ন্ত্রণ করেন।


দ্য সুলতান ধারাবাহিকভাবে আপনাদের জন্য উপস্থাপন করছে পৃথিবীর সব দেশের সেরা মসজিদভিত্তিক ফিচার-আয়োজন বিউটিফুল মস্ক ইন দ্য ওয়ার্ল্ড। দ্য সুলতানের সঙ্গে থাকুন, পৃথিবীর সব নান্দনিক মসজিদ দেখুন।


কিপ রিডিং…

জাপানের সেরা পাঁচ মসজিদ

‘সূর্যোদয়ের দেশ’ হিসেবে জাপানের একটা আলাদা পরিচিতি রয়েছে। জাপান বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বিপর্যয়ের পরও বিংশ শতাব্দীর শেষ ভাগে দারুণ অগ্রগতি অর্জন করে দেশটি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে জাপানের ভূমিকা বেশ গুরুত্বপূর্ণ।


বিশ্বের অন্যতম প্রধান দাতা দেশ জাপান। সব কিছুর সঙ্গে মিলে মিশে একাকার হয়ে আছে জাপানের মুসলিম ঐতিহ্য। বেশ কিছু নজরকাড়া মসজিদও রয়েছে জাপানে।


জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে অন্যতম বৃহৎ এই দেশটির মানুষ মূলত চারটি দ্বীপের শহরগুলোতে বসবাস করে। প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত পূর্ব এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র ছয় হাজার ৮৫২টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত। চারটি বড় দ্বীপ হনশু, হোক্কাইডো, কিওশু ও শিকোকুতেই দেশটির মোট আয়তনের ৯৭ শতাংশ।

কিপ রিডিং…

গো টু টপ